শনিবার , সেপ্টেম্বর ১৯ ২০২০
Breaking News

১৯তম স্প্যানে পদ্মা সেতুর ২৮৫০ মিটার দৃশ্যমান : ২০তম স্প্যান বসবে ২৮ ডিসেম্বর

মঠবাড়িয়া প্রতিদিন ডেস্ক : দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতুর ১৯তম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে ২ হাজার ৮৫০ মিটার দৃশ্যমান হয়েছে। বুধবার দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিটে জাজিরা প্রান্তে ২১ ও ২২ নম্বর পিলারের ওপর স্প্যানটি বসানো হয়। ইতিমধ্যে সেতুর প্রায় ৮৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে বলে সেতু বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আবদুল কাদের জানিয়েছেন। মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে আগামী ২৮ ডিসেম্বর ২০তম স্প্যান বসানো হবে।
পদ্মা সেতু সেতু বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর জানান, ২০১৭ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর সেতুর প্রথম স্পেন, ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি দ্বিতীয় স্পেন, ১০ মার্চ তৃতীয় স্পেন, ১৩ এপ্রিল ৪র্থ স্পেন, ২৯ জুন ৫ম স্পেন, ২০১৯ সালে ২৩ জানুয়ারি ষষ্ঠ স্প্যান, ২০ ফেব্রুয়ারি ৭ম স্পেন, ২০ মার্চ ৮ম স্পেন, ১৮ এপ্রিল ৯ম স্পেন বসানো হয়।
বুধবার সকালে মাওয়ার মুন্সীগঞ্জের কুমার ভোগের বিষেশায়িত জেডি থেকে ১৯তম স্প্যান নিয়ে শক্তিশালী ভাসমান ক্রেন তিয়ানি হাউ জাজিরার উদ্দেশে রওনা হয়। বেলা ১১টার দিকে স্প্যানটি নিয়ে জাজিরা প্রান্তে পৌঁছায়। দুপুর পৌনে ১টার দিকে ২১ ও ২২ নম্বর পিলারের ওপর স্প্যানটি বসানোর মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতুর কাজ আরও একধাপ এগিয়ে যায়।
এ নিয়ে জাজিরা প্রান্তে ১২টি স্প্যান বসানো হলো। জাজিরা প্রান্তে দৃশ্যমান হলো ১৮০০ মিটার। অপরদিকে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ৭টি স্প্যান বসানো হয়। এ নিয়ে পদ্মা সেতুর দৃশ্যমান হলো ২ হাজার ৮৫০ মিটার।
প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার। ৪২টি পিলারের ওপর ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে।
এর মধ্যে সবকটি পাইলিংয়ের কাজ শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে সেতু বিভাগ। এ স্প্যানটি বসানোর সংবাদে পদ্মাপাড়ের মানুষের মধ্যে ব্যাপক আনন্দ উৎসাহ ও উদ্দীপনা লক্ষ করা গেছে।
পদ্মা সেতুর কাজ শেষ হলে দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে গোটা দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নতি হবে। দেশের অর্থনীতিতে নতুন মাত্রা যোগ হবে। পদ্মা সেতুর দুই পাড়ে গড়ে উঠবে বিশ্বমানের শহর। কলকারখানায় ভরে উঠবে এ এলাকা। শ্রমজীবী মানুষের ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। সারা দেশের সঙ্গে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যোগাযোগব্যবস্থার উন্নতি ঘটবে।
মঙ্গল মাঝির ঘাটের ইজারাদার মোকলেছুর মাদবর বলেন, আমরা জমি দিয়েও শান্তি পেয়েছি। ধীরে ধীরে পদ্মা সেতুর কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। ১৯তম স্পেন বসছে দেখে খুশি হলাম। আশা করি পদ্মা সেতু ২০২১ সালের মধ্যে যানবাহন চলাচলের উপযোগী হবে।
সেতু বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আ. কাদের বলেন, বুধবার পদ্মা সেতুর ১৯তম স্প্যানটি বসানো হলো। আগামী ২৮ ডিসেম্বর ২০তম স্পেন মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে বসানো হবে। ইতিমধ্যে সেতুর প্রায় ৮৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। আগামী বছরের জুলাই মাসের মধ্যে সবকটি স্পেন বসিয়ে সেতুটি দৃশ্যমান করে তুলব বলে আশা করছি। সূত্র : যুগান্তর অনলাইন।

Comments

comments

Check Also

করোনা তহবিলে টাকা দেয়া শেরপুরের সেই ভিক্ষুক পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার

মঠবাড়িয়া প্রতিদিন ডেস্ক : শেরপুরে কর্মহীনদের জন্য ১০ হাজার টাকা অনুদান দেয়া ভিক্ষুক নজিম উদ্দিন …

করোনার মূল উৎপত্তি কোথায় জানাল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

মঠবাড়িয়া প্রতিদিন ডেস্ক : প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস কোথা থেকে এসেছে তা প্রমাণাদি বিশ্লেষণ করে জানিয়েছে বিশ্ব …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!