বুধবার , সেপ্টেম্বর ২৩ ২০২০
Breaking News

হাসানেরও স্কুলে পড়তে ইচ্ছে করে

ইসরাত জাহান মমতাজ : মঠবাড়িয়ার পৌর শহরের বিভিন্ন গলিতে গলিতে ও বাস স্টান্ডে জীবিকার প্রয়োজনে গলায় ঢালা বুঝিয়ে পান বিক্রি করে ৮ বছর বয়সি হাসান। হাসানের বয়সি ছেলেরা যখন বই খাতা নিয়ে স্কুলে যায় তখন তাকিয়ে দেখে আর ভাবে আমিও যদি ওদের মত স্কুলে যেতে পারতাম। বই-খাতার পরিবর্তে হাসানের কাধে কষ্টের পানের ঢালা। বাবা মিরাজ সেই কবে ফেলেরেখে চলে গেছে বলতেও পারেনা চোট্ট হাসান। মা ফাহিমা ভিক্ষা করে চার ভাই বোনকে নিয়ে কোন দিন খেয়ে না খেয়ে দিন কাটায়। তিন বেলা পেটপুরে খাওয়ার আসায় সংসারের বড় ছেলে হাসান কাঁদে তুলে নিয়েছে পানের ঢালা। প্রতিদিন পান বিক্রির ৫০-৬০ টাকা দিয়ে চলছে হাসান এর মায়ের সংসার।


কোথায় থাক, কেন পান বিক্রি কর জানতে চাইলে হাসান জানায়, “আব্বা মোগো হালাইয়া থুইয়া গ্যাছে। আর থাকি মায়ের লগে”(বাড়ির ঠিকানা নিদিষ্ট করে বলতে পারেনা হাসান কোথায় তার গ্রাম) । স্কুলে যাবে কিনা জানতে চাইলে, বলে, ”স্কুলে গ্যালে খামু কি? স্কুলের টাহা কেডা দেবে”।
হাসানের নিদিষ্ট করে কিছু গ্রাহক আছে তারা পান ক্রয়ের সাথে সাথে আদর করে। সন্ধ্যায় হাসান ও তার ছোট ভাইকে দেখা যায় দামোদর স্টুডিও সামনে। সেখানের ক্রেতারা ওদের দু’জনকে কিছু না কিছু খেতে দেয় আর কাছে নিয়ে আদরও করে।
হাসানের নিয়মিত গ্রাহক মঠবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবদুস সালাম আজাদী জানান, হাসান প্রতিদিন আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পান বিক্রি করতে আসলে পানের খিলি ক্রয়ের সাথে সাথে ¯েœহ ও আদরে যখন পাশে বসাই হাসানের হাসিমাখা কচি মুখটি দেখি তখন শান্তিতে ভরে যায় আমার হৃদয়। তখন ভাবী ওকে যদি অন্য শিশুদের মত স্কুলে পাঠাতে পারতাম তাহলে আমার মত খুশি কেউ হোত না।

 

 

Comments

comments

Check Also

অসহায় ৬ রোগীকে প্রবাসী মানব কল্যাণ ফোরামের চিকিৎসা সহায়তা প্রদান

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মঠবাড়িয়া প্রবাসী মানব কল্যাণ ফোরামের উদ্যেগে দুরারোগ্য …

মঠবাড়িয়ায় জমিজমার বিরোধের জেরে বর্গা চাষীর পা ভেঙ্গে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা

স্টাফ রিপোর্টারঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় জমিজমা নিয়ে বিরোধের জেরে রিয়াজুল হক ও তার বর্গা চাষী ফারুক ফরাজীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!