রবিবার , সেপ্টেম্বর ২০ ২০২০
Breaking News

সিদ্দিকুরের জন্য ভালোবাসা

জাহিদ আহসান মেনন : সিদ্দিকুর আমার বড় মেয়ের বয়সী। তিন বছর বয়সে বাবা হারিয়েছে। বড় ভাই রাজমিস্ত্রির কাজ করে। পরিবারের হাল ধরবে বলে অনেক স্বপ্ন নিয়ে ভর্তি হয়েছিল মহাখালীর তিতুমির কলেজে। রাষ্ট্রবিজ্ঞানের শেষবর্ষের ছাত্র। আর ক’দিন পরেই বেরিয়ে যেত স্নাতক হয়ে। পরীক্ষার তারিখ পড়ছিল না সিদ্দিকুরদের। সিদ্দিকুরের তো অনির্দিষ্টকাল ছাত্রত্ব বাঁচানোর সামর্থ্য বা আগ্রহ নেই। যে সিদ্দিকুর জীবনে কোনো মিছিল মিটিংয়ে যায়নি, সেই সিদ্দিকুর নৈতিক সমর্থনের কারণে পরীক্ষার তারিখ ঘোষনার দাবিতে সবার সাথে নেমে এলো রাজপথে। একটি নির্দোষ শান্তিপূর্ণ মিছিল। সেদিনের সকালটা কি মনে আছে সিদ্দিকুরের! সেই চিরচেনা ক্যাম্পাস, বন্ধুরা আর জীবনে ফিরবে না! দেখবে না মায়ের মুখ, নীল আকাশ। অলস বিকেলে দল বেঁধে পাখিদের নীড়ে ফেরা কিংবা বৃষ্টি দেখে চোখ জুড়ানো তার চিরদিনের জন্য শেষ হতে চলেছে । সিদ্দিকুর কি ঘুণাক্ষরেও বুঝতে পেরেছিল আজই শেষ দেখা পৃথিবী, হাতড়িয়ে হাতড়িয়ে চলতে হবে সারা জীবন!

একজন সরল সিদ্দিকুর অনেক স্বপ্ন এবং আশা নিয়ে এসেছিল রাজধানী শহরে। আমরা তার স্বপ্ন হত্যা করেছি, কালো আঁধারের সাথী করে দিয়েছি আমৃত্যু।
সিদ্দিকুর এখন নিজে নিজে চলার সাহস সঞ্চয় করেছে। হাঁটতে চায় একা একা। খেতেও চায় কারো সাহায্য ছাড়াই। ওর এই আত্মবিশ্বাস দেখে আমি অবাক হই । ধ্বংস হতে পারে কিন্তু কখনও হেরে যাবে না সিদ্দিকুর।

লেখক : জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক। পরীক্ষার দাবিতে মিছিল করতে গিয়ে টিয়ারশেলের আঘাতে চিরঅন্ধত্ব বরণ করতে যাওয়া সিদ্দিকুরের সঙ্গে যিনি বতর্মানে চেন্নাইয়ে অবস্থান করছেন। জাহিদ আহসান মেননের বাড়ি মঠবাড়িয়ার দক্ষিণবন্দরে।

 

Comments

comments

Check Also

গণস্বাস্থ্যের করোনা শনাক্ত কিট সিডিসিকে হস্তান্তর

মঠবাড়িয়া প্রতিদিন ডেস্ক : গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত কোভিড-১৯ সংক্রমণ নির্ণয়ক বা জিআর কোভিড-১৯ ডট ব্লট যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা …

শনিবার হস্তান্তর করা হতে পারে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কিট

মঠবাড়িয়া প্রতিদিন ডেস্ক : যথাসময়ে রক্তের নমুনার অভাবে সরকারকে কিট দিতে পারছে না গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!