মঠবাড়িয়াশনিবার , ১০ জুন ২০১৭
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস-ঐতিহ্য
  3. খেলাধুলা
  4. জাতীয়
  5. প্রতিবেদন
  6. ফটো গ্যালারি
  7. বিচিত্র খবর
  8. বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি
  9. বিনোদন
  10. ভিডিও গ্যালারি
  11. মঠবাড়িয়ার খবর
  12. মতামত
  13. মুক্তিযুদ্ধ
  14. রাজনৈতিক খবর
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

শ্বশুরবাড়িতে জামাই খুন : মঠবাড়িয়ায় খুনের দুই মাস পর স্ত্রী ও শ্যালিকা গ্রেফতার

Mathbariaprotidin
জুন ১০, ২০১৭ ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

স্টাফ রিপোর্টার : শ্বশুরবাড়িতে আল আমিন হাওলাদার (২৬) নামে এক যুবকের খুনের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ স্ত্রী পলি আক্তার (২২) ও শ্যালিকা ডলি আক্তারকে (২০) গ্রেফতার করেছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পার্শ্ববর্তী বামনা থানার অযোধ্যা গ্রামের পলির খালাবাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

মামলা ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মঠবাড়িয়া পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের সবুজনগর এলাকার আবু হানিফ হাওলাদারের পুত্র আল আমীনের সাথে প্রায় সাড়ে তিন বছর পূর্বে ঘোষের টিকিকাটা গ্রামের সৌদি প্রবাসী ফুল মিয়ার মেয়ে পলি আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর ফুল মিয়া জামাই আল আমীনকে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে তিন লাখ টাকা নগদ গ্রহণ করে। কিন্তু বিদেশে না পাঠানোয় আল আমীনের সাথে শ্বশুরের বিরোধের সৃষ্টি হয়। ওই বিরোধ চলাকালে স্ত্রী পলি আক্তারকে সবুজনগরে শ্বশুরবাড়ি তুলে নেয়া হলেও কিছুদিন পর স্ত্রী বাবার বাড়ি চলে আসলে আল আমিনের সাথে পলির যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে। কয়েক মাস পর পুনরায় তাদের মধ্যে সম্পর্কের সৃষ্টি হলে আল আমীন ঘোষের টিকিকাটা গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে থাকতে শুরু করে। এর মধ্যে প্রবাসী শ্বশুরবাড়িতে এলে ওই পাওনা টাকা নিয়ে শ্বশুর-জামাই পুনরায় বাক-বিতণ্ডা হয়। এ ঘটনার জের ধরে গত ৬ এপ্রিল গভীর রাতে শ্বশুরবাড়িতে বসে শ্বশুর, স্ত্রী, শাশুড়িসহ অন্যরা মিলে আল আমীনকে মারধর করে গুরুতর আহত করে মুখে বিষ ঢেলে দেয়। পরে চিকিত্সাধীন অবস্থায় বারিশাল শেবাচিম হাসপাতালে আল আমীন মারা যায়। এ ঘটনায় বরিশাল কোতোয়ালি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়।

পরে লাশের ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে হত্যা প্রমাণিত হওয়ায় নিহত আল আমীনের মা সুফিয়া বেগম বাদী হয়ে গত ১ জুন  ছেলেকে হত্যার অভিযোগে ৭ জনকে আসামি করে বরিশাল কোতোয়ালি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মঠবাড়িয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাজহারুল আমিন (বিপিএম) জানান, আল আমীনের লাশের ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর হত্যা মামলা রেকর্ড করা হয়। বৃহস্পতিবার অভিযান চালিয়ে স্ত্রী ও শ্যালিকাকে গ্রেফতার করা হয়। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
error: Content is protected !!