মঠবাড়িয়ামঙ্গলবার , ২৫ জুলাই ২০১৭
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস-ঐতিহ্য
  3. খেলাধুলা
  4. জাতীয়
  5. প্রতিবেদন
  6. ফটো গ্যালারি
  7. বিচিত্র খবর
  8. বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি
  9. বিনোদন
  10. ভিডিও গ্যালারি
  11. মঠবাড়িয়ার খবর
  12. মতামত
  13. মুক্তিযুদ্ধ
  14. রাজনৈতিক খবর
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

রুস্তম আলী ফরাজীকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে যুবলীগ-স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা

Mathbariaprotidin
জুলাই ২৫, ২০১৭ ১:৫৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ডেস্ক রিপোর্ট : পিরোজপুর-৩ (মঠবাড়িয়া) আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজীকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মঠবাড়িয়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত সহকারী মাসুম বিল্লাহ বাদী হয়ে স্থানীয় ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের কয়েজন নেতাসহ নাম উল্লেখ করে ১০ জন ও অজ্ঞাতনামা আরও ২০/২৫ জনের বিরুদ্ধে এই মামলা দায়ের করেন। মঠবাড়িয়া থানার ওসি তদন্ত মাজহারুল আমীন মামলার তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে সংসদ সদস্যকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ অস্বীকার করেছে ছাত্রলীগ-যুবলীগ।
প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ওসি তদন্ত মাজহারুল জানান, জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষে মঠবাড়িয়া উপজেলা মৎস্য বিভাগ সোমবার সাপলেজা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মিলনায়তনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজী। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি মঠবাড়িয়ায় মাদক সেবন ও বিক্রির সঙ্গে ছাত্রলীগ-যুবলীগের জড়িত থাকার অভিযোগ করেন। এ সময় সভায় হট্টগোল শুরু হয়। এক পর্যায়ে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উপস্থিত নেতাকর্মীরা তাকে অবরুদ্ধ করে ফেলে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।
এ ঘটনার পর সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত সহকারী মাসুম বিল্লাহ বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় সাপলেজা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সওকাতুল আলম সুমন, সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম লিমন, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি নুরুল আমীন রাসেল, সাধারণ সম্পাদক ফারুক পাহলোয়ান, ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সমীর সাহা, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মোল্লাসহ ১০ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা আরও ২০/২৫ জনকে আসামি করা হয়। এর আগে গত ৬ জুলাই সংসদ সদস্য রুস্তমের অনুসারী ফারুক হোসেন বাদী হয়ে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় যে মামলা করেছিলেন, তার ১নং আসামি ছিলেন ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি নুরুল আমীন রাসেল।
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজী বলেন, ‘সাপলেজার ইউপি চেয়ারম্যান মিরাজ মিয়া জেলেদের তিন মাসের চাল আত্মসাৎ করেছেন। আমি এ বিষয়ে কথা বলেছি। আমি ডাকাতদের বিরুদ্ধে কথা বলেছি। আমি মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলেছি। এ কারণেই স্থানীয় পলাশ, জাহিদুল, ইকবাল মোল্লা, ফয়সাল, সাইফুল, সমীর, ফারুক পাহলোওয়ান সুমনসহ কয়েকজন দা-কুঠার নিয়ে আমাকে হত্যার চেষ্টা চালায়। তারা আমার অনুসারী জয়নাল ও আনসারকে মারধর করে।’ কোনও সংগঠনকে নিয়ে তিনি বক্তব্য রাখেননি বলে দাবি করেন। তিনি আরও বলেন, ‘ঘটনাস্থলে পুলিশ না থাকলে হামলাকারীরা আমাকে মেরে ফেলত।’
সংসদ সদস্যের সব অভিযোগ অস্বীকার করছেন স্থানীয় ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতারা। সাপলেজা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মিরাজ মিয়া বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ডা. রস্তুম আলী ফরাজী মৎস্য বিভাগ আয়োজিত সভায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগকে সন্ত্রাসী, ডাকাত, ভূমিদস্যু বলায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগ কর্মীরা তাকে সকাল সাড়ে ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত অবরুদ্ধ করে রাখে। এ সময় তার বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। কিন্তু সংসদ সদস্য তাকে হত্যাচেষ্টার যে অভিযোগ এনেছেন, তা একেবারেই ভিত্তিহীন।’
সাপলেজা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সওকাতুল আলম সুমন বলেন, ‘সকাল ১১টার দিকে আমি ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লিমনসহ কয়েকজন বাজার এলাকায় বসেছিলাম। স্কুলের দুই শিক্ষার্থী এসময় আমাদের ফোন করে জানায় যে ক্লাস বন্ধ করে সংসদ সদস্য সভা করছেন। এরপর আমরা স্কুলের দিকে যাই। সেখানে বেশ কয়েকজন অভিভাবকও ছিলেন। অভিভাবকরা অভিযোগ করেন, জেলেদের ছাড়াই মৎস্য সপ্তাহের আয়োজন করেছে মৎস্য বিভাগ। তারা বলেন, আমরা সন্তানদের স্কুলে পাঠিয়েছি পড়ালেখা করাতে, সভায় যোগ দিতে নয়।’
মঠবাড়িয়া থানার ওসি (তদন্ত) মাজহারুল আমীন বলেন, সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত সহকারী মাসুম বিল্লাহ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় হত্যাচেষ্টা, হুমকি ও চুরির অভিযোগ করা হয়েছে। মামলার আসামির তালিকায় স্থানীয় ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের কয়েকজন নেতার নাম আছে।’

[সূত্র : বাংলা ট্রিবিউন]

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
error: Content is protected !!