মঙ্গলবার , নভেম্বর ২৪ ২০২০
Breaking News

মঠবাড়িয়ায় সাবেক নারী ভাইস চেয়ারম্যানকে হত্যা চেষ্টা মামলায় দু‘মাসেও গ্রেপ্তার হয়নি আসামী

স্টাফ রিপোর্টার : মাদক বিক্রিতে বাঁধা দেয়ায় পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক নারী ভাইস চেয়ারম্যান শোভা রানী মজুমদার (৫০) কে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা মামলার আসামীরা দু‘মাসেও গ্রেপ্তার হয়নি। এতে পুণঃরায় হামলার শিকার হবার আশংঙ্কায় তিনি গ্রামের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। গত ২ জুলাই রাত ৯ টার দিকে বসত ঘর থেকে রান্না ঘরে যাওয়ার উদ্যত হয়ে দরজা খোলার সাথে সাথে শোভা রানী মজুমদারের গলার চেইন ছিনিয়ে নেয়। পরে এলোপাথারি কুপিয়ে মৃত্যু ভেবে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়িরা। এ ঘটনায় তিনি হাসপাতালে থেকে ৫ জুলাই ইসমাইল হাওলাদার (২২) ও তার পিতা রত্তন হাওলাদার (৫০) সহ অজ্ঞাত দুই জনের বিরুদ্ধে মঠবাড়িয়া থানায় মামলা করেন।
শোভা রানী মজুমদার মঠবাড়িয়া আনসার ভিডিপি এর পৌর প্রধান কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার ওপর নৃশংস হামলার প্রতিবাদে ও আসামীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে মঠবাড়িয়া, ভান্ডারিয়া, কাউখালী ও রাজধানী ঢাকাতেও মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রত্তন হাওলাদার স্ব-পরিবারে এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ি। তাদের বিরুদ্ধে মঠবাড়িয়া থানায় ৫টি মাদক মামলা রয়েছে। সম্প্রতি মঠবাড়িয়া থানার এস আই শাহানাজ পারভীন ১৩০০ পিছ ইয়াবাসহ পুরো পরিবারকে গ্রেপ্তার করে। এর আগে পিরোজপুর ডিবি পুলিশের এস আই দোলোয়ার হোসেন জসিম ৪ দফা তাদেরকে ইয়াবা, গাঁজা. চোরাই মাল ও নগদ টাকাসহ গ্রেপ্তার করেন।
এস আই দোলোয়ার জানান, বিভিন্ন সময় চোরাই মাল ও ১ কেজি গাঁজাসহ রত্তনের ছেলে কালামকে প্রথম গ্রেপ্তার করা হয়। দ্বিতীয় দফায় তাদের ১০ কেজি গাঁজা, ২শ পিছ ইয়াবা, তৃতীয় দফায় ৫ পিছ ইয়াবা ও নগদ ৩২ হাজার টাকা। শেষবার ৫০ পিছ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয়।

এদিকে এলাকার চিহ্নিত মাদক পরিবারটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমিতে অবৈধভাবে বসবাস করে আসছে। মাদক পরিবার হিসেবে কয়েক বছর আগে এলাকাবাসি তাদেরকে এলাকাচ্যুত করেন। অজ্ঞাত কারন ও অদৃশ্য শক্তির ফলে আবারও তারা ওই জমিতে পাকা স্থাপনা নির্মান করে একধরনের ঢোল-ডাঙ্কা পিটিয়ে মদক ব্যবসা করে আসছে।

শোভা রানী মজুমদার জানান, পুলিশ বার-বার মাদক পরিবারের সদস্যদের গ্রেপ্তার করে। আমার বাসা ওই মাদক পরিবারটির বাসা সংলগ্ন হওয়ায় আমি পুলিশকে সহযোগিতা করি এই সন্দেহে তারা আমাকে কুপিয়ে হত্যার চেস্টা করে। আমাকে মৃত্যু ভেবে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। তিনি ক্ষোভের বলেন, আজ দুমাস হলেও পুলিশ কোন আসামী গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এদের উপযুক্ত শাস্তি না হলে পরে আমাকে খুন করে ফেলবে।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি মাসুদুজ্জামান জানান, আসামীদের গ্রেপ্তার পুলিশি অভিযান অব্যহত রয়েছে।

Comments

comments

Check Also

মঠবাড়িয়ায় মাথার খুলিবিহীন শিশুর জন্ম

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় সৌদি প্রবাসী হাসপাতালে মাথার খুলি বিহীন একটি শিশু জন্ম হয়েছে। উপজেলার …

মঠবাড়িয়ায় মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে গ্রামবাসির মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় কথিত রাজাকার আজিজ খা (৭২) ও তার দোষর মো. নুরুল …

error: Content is protected !!