মঠবাড়িয়াশুক্রবার , ১ সেপ্টেম্বর ২০১৭
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস-ঐতিহ্য
  3. খেলাধুলা
  4. জাতীয়
  5. প্রতিবেদন
  6. ফটো গ্যালারি
  7. বিচিত্র খবর
  8. বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি
  9. বিনোদন
  10. ভিডিও গ্যালারি
  11. মঠবাড়িয়ার খবর
  12. মতামত
  13. মুক্তিযুদ্ধ
  14. রাজনৈতিক খবর
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মঠবাড়িয়ায় শোক সভায় যোগ দেয়াকে কেন্দ্র করে হামলা : আহত-৭

Mathbariaprotidin
সেপ্টেম্বর ১, ২০১৭ ১০:৪১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

স্টাফ রিপোর্টার : আওয়ামী লীগের শোক সভায় যোগ দেয়ার অপরাধে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক সেলিম মাতুব্বর এর সমর্থক মাদ্রাসার ছাত্র মেহেদী হাসান (১৮) কে  শুক্রবার বেলা ১১টায় মারধর করেছে অপর এক আওয়ামী লীগ নেতা ও তার সমর্থকরা। এ সময় মেহেদীকে উদ্ধার করতে পরিবারের লোকজন এগিয়ে এলে তাদেরকেও এলোপাতারি পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। আহতরা হলো উত্তর মিঠাখালী গ্রামের ছগির মেম্বরের ছেলে মেহেদী হাসান, চাচা জাকির হোসেন (৪৫), তার স্ত্রী জেসমিন আক্তার (৩৫), ছোট ভাই আরিফ হোসেন (২৫), আবু হোসেন জমাদ্দার এর পুত্র আসাদ (৩০) এবং একই গ্রামের হামেজ মাঝির পুত্র সেকান্দার আলী (৫০) ও আবু হানিফের পুত্র ইদ্রিস আলী (১৭)।
স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্রেক্সে ভর্তি করলে কর্তব্য রকত চিকিৎসক বিকেলে গুরুতর অবস্থায় জেসমিন আক্তার, আরিফ হোসেন, মেহেদী হাসান ও ইদ্রিস আলীকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
আহত ও হাসপাতাল সূত্রে জানাযায়, গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে স্থানীয় গুলিশাখালী ইউনিয়ন পরিষদে শোক দিবসে সেলিম মাতুব্বরের সমর্থক মেহেদী হাসান যোগ দেয়ায় উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক লোকমান হোসেন খানের নেতৃত্বে ১০/১২ জন লোক বান্ধাকাটা বাজার এলাকায় শুক্রবার বেলা ১১টায় মেহেদীকে ধাওয়া করে। এ সময় মেহেদী তার চাচা জাকির হোসেনের দোকানে আশ্রয় নিলে  হামলাকারীরা দোকানে ঢুকে মেহেদীকে বেধড়ক মারধর করে। মেহেদীকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পরিবারের লোকজনসহ ৭জনকে গুরুতর আহত করে।
আহত মেহেদী হাসান বলেন, বৃহস্পতিবার গুলিসাখালী ইউনিয়নে জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে আমি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক মাতুব্বরের সঙ্গে যোগ দেই। এ কারণে সেলিম মাতুব্বরের প্রতিপক্ষ লোকমান হোসেন খান ও তার লোকজন আমার ওপর হামলা চালায়।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক লোকমান হোসেন খান তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ  অস্বীকার করেন।
এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাতুব্বর বলেন, আহত মেহেদী আমার সমর্থক এ কারণেই আমার প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরাই এ হামলা চালিয়েছে।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ কেএম তারিকুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
error: Content is protected !!