মঠবাড়িয়াশনিবার , ৩ জুন ২০১৭
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস-ঐতিহ্য
  3. খেলাধুলা
  4. জাতীয়
  5. প্রতিবেদন
  6. ফটো গ্যালারি
  7. বিচিত্র খবর
  8. বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি
  9. বিনোদন
  10. ভিডিও গ্যালারি
  11. মঠবাড়িয়ার খবর
  12. মতামত
  13. মুক্তিযুদ্ধ
  14. রাজনৈতিক খবর
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মঠবাড়িয়ায় মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাইয়ে আড়াই কোটি টাকার বাণিজ্যের অভিযোগ

Mathbariaprotidin
জুন ৩, ২০১৭ ৩:৫৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সংসদ সদস্য ও যুদ্ধাপরাধী মামলার আসামিও তালিকায় !

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাইয়ে ব্যাপক অনিয়ম, সীমাহিন দুর্নীতি ও মোটা অংকের টাকার বিনিময় অমুক্তিযোদ্ধাদের মুক্তিযোদ্ধা তালিকাভুক্ত করে মন্ত্রণালয়ে প্রেরণের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মুক্তিযোদ্ধাদের একাংশ। শনিবার সকালে স্থানীয় প্রেসক্লাবে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন যুদ্ধকালীন ইয়ং অফিসার (সুন্দরবন অঞ্চল) মজিবুল হক খান মজনু। এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন সাবেক পিরোজপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও প্রাক্তন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ সাদিকুর রহমান, ভারতের আমলানি যুব প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের পলিটিক্যাল মোডিভেটর মোস্তফা শাহ আলম দুলাল, মুক্তিযোদ্ধা হালিম জমাদ্দার, জাহাঙ্গীর হোসেন, ইয়াকুব আলী প্রমুখ।
লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করা হয়, সম্প্রতি মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কমিটির সভাপতি ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বাচ্চু মিয়া আকনসহ ওই কমিটির অনেকেই অমুক্তিযোদ্ধা। উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১১টি ইউনিয়নের বাদপড়া ৪০/৫০ জন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার স্থলে যাচাই কমিটি প্রায় আড়াই কোটি টাকার বিনিময়ে ৩শ জনের তালিকা করে কেন্দ্রে পাঠায়। অথচ প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধারা অনেকেই তাদের দাবিকৃত টাকা দিতে না পারায় ওই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে পারেননি বলে অভিযোগ আনা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজী, দুটি যুদ্ধাপরাধ মামলার আসামী তুষখালী গ্রামের মোঃ হাবিবুর রহমান, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অবসরপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী বেলায়েত হোসেনসহ কয়েকজন অমুক্তিযোদ্ধাকে মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে কেন্দ্রে পাঠায় যাচাই-বাছাই কমিটি। এছাড়া অনেকেই অনলাইনে আবেদন করেও যাচাই বাছাই কমিটির সম্মুখে উপস্থিত না হলেও তাদেরকে বাড়ি থেকে ডেকে এনে প্রচুর টাকার বিনিময়ে নিজেরা প্রত্যয়নপত্র দিয়ে মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছেন।

এতে আরও অভিযোগ করা হয়, তালিকাভুক্ত ১৩২ জন মুক্তিযোদ্ধাদের নাম মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয় থেকে সরকারিভাবে আপত্তি দিয়ে যাচাই-বাছাই কমিটির সম্মুখে উপস্থিত হবার জন্য দেয়া হায়েছিল কিন্তু মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে আপত্তি থাকা সত্ত্বেও তাদের অধিকাংশকে তালিকাভুক্ত করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
error: Content is protected !!