সোমবার , সেপ্টেম্বর ২১ ২০২০
Breaking News

মঠবাড়িয়ায় বিএনপির ইউনিয়ন কমিটির জরুরী সভা : নতুন কমিটি প্রত্যাখান!

স্টাফ রিপোর্টার : সদ্য ঘোষিত মঠবাড়িয়ায় উপজেলা বিএনপির কমিটি প্রত্যাখান করেছেন নতুন কমিটির সভাপতি রুহুল আমীন দুলালের অনুসারীসহ ১১ ইউনিয়নের নেতা কর্মীরা। শনিবার দুপুরে উপজেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে এক জরুরী সভায় ইউনিয়ন কমিটির জ্যেষ্ঠ নেতৃবৃন্দ সম্মেলন ছাড়া ঘোষিত কমিটি প্রত্যাখান করে কাউন্সিলের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠনের দাবী জানান। সভায় বেতমোর রাজপাড়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবুল হাসেম হাওলাদার এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সাবেক উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও নতুন কমিটির সভাপতি রুহুল আমিন দুলাল, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন ফারুক, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. রফিকুল ইসলাম বাবুল, সাপলেজা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি হাবিবুর রহমান, মিরুখালী’র সভাপতি কামরুল আহসান খোকন, গুলিসাখালী’র সভাপতি শামিম আহসান, দাউদখালী’র সভাপতি মিজান তালুকদার প্রমুখ।

সদ্য ঘোষিত কমিটির সভাপতি ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন দুলাল ওই সভায় একাত্বতা ঘোষণা করে বলেন, দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া সম্মেলনের মাধ্যমে মঠবাড়িয়ায় উপজেলা কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছিলেন। এ নির্দেশ উপেক্ষা করে দলীয় গঠনতন্ত্র পরিপন্থী সম্মেলন ছাড়া কমিটি গঠনের বিষয়টি আমি জানিনা এবং তৃনমুলের নেতা-কর্মীদের মতামত না নিয়ে কাউন্সিল ছাড়া ঘোষিত কমিটি মানিনা।
পরে ওই সভায় ১১ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি, সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ৪১ নেতা গণস্বাক্ষর করে নতুন কমিটি বাতিলের দাবী জানিয়ে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও মহাসচিবকে লিখিত ভাবে জানানো হবে। কেন্দ্র যদি কোন সুরাহা না দেয় নতুন কমিটি থেকে গণহারে পদত্যাগের হুমকি দেন।
দলীয় সূত্রে জানাগেছে, দীর্ঘ নয় বছর পর সম্মেলন ছাড়াই গত ১১ জুলাই রুহুল আমীন দুলালকে সভাপতি, সাবেক পৌর বিএনপির সভাপতি কেএম হুমায়ুন কবীরকে সাধারণ সম্পাদক ও আ ম ইউসুফ্জ্জুামানকে সভাপতি ও নাজমুল আহসান কামাল মুন্সিকে সাধারণ সম্পাদক করে আংশিক কমিটি করে জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক উপজেলা ও পৌর বিএনপির কমিটি অনুমোদন দেন।
ওই দুই কমিটি সম্প্রতি ঘোষণার পর রুহুল আমীন দুলাল ও কেএম হুমায়ুন কবির এর সমর্থকরা দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়ে ।
উল্লেখ, মঠবাড়িয়া উপজেলা বিএনপি দীর্ঘদিন ধরে দুই ভাগে বিভক্ত। বিবাদমান দুই পক্ষের দলীয় অফিস আলাদা তেমনি কেন্দ্র ঘোষিত সকল কর্মসূচি দুই পক্ষে পৃথকভাবে পালন করে আসছেন। দলের অভ্যন্তরীণ বিরোধ মেটাতে কেন্দ্রীয়ভাবেও চেষ্টা করে সমাধান মেলেনি। ফলে সাধারণ নেতা কর্মীরা দলের প্রতি ক্ষুব্দ। এমন অবস্থায় বিরোধ না মিটিয়ে কাউন্সিল ছাড়া কমিটি গঠনে নতুন করে দলে আরও বিভক্তি ডেকে আনতে পারে এমন আশংকা দলের ত্যাগী নেতা কর্মীদের। বিবাদমান এ দুই পক্ষের বড় একটি অংশ দলের নতুন কমিটির সভাপতি রুহুল আমীন দুলালের নেতৃত্বে সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি গঠনের দাবি করে আসছিল।

 

Comments

comments

Check Also

ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীকে মানব কল্যাণ ঐক্য পরিষদের চিকিৎসা সহায়তা প্রদান

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় অলাভজনক সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মানব কল্যাণ ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে ক্যান্সারে …

গভীর রাতে গোয়াল ঘরে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে গরুসহ গোয়াল ঘর পুড়ে ছাই

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া ভেচকী গ্রামে রোববার রাতে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে গরু ব্যবসায়ী আব্দুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!