মঠবাড়িয়াবৃহস্পতিবার , ৫ অক্টোবর ২০১৭
  1. আন্তর্জাতিক
  2. ইতিহাস-ঐতিহ্য
  3. খেলাধুলা
  4. জাতীয়
  5. প্রতিবেদন
  6. ফটো গ্যালারি
  7. বিচিত্র খবর
  8. বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি
  9. বিনোদন
  10. ভিডিও গ্যালারি
  11. মঠবাড়িয়ার খবর
  12. মতামত
  13. মুক্তিযুদ্ধ
  14. রাজনৈতিক খবর
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মঠবাড়িয়ার সূর্য্যমণি বধ্যভূমিতে ৪৬ বছরেও গড়ে উঠেনে স্মৃতিস্তম্ভ

Mathbariaprotidin
অক্টোবর ৫, ২০১৭ ৪:৪৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ৬ অক্টোবর রাতে স্থানীয় রাজাকার বাহিনী ২৫ হিন্দু বাঙালীকে এক দড়িতে বেঁধে সূর্য্যমণি বেড়িবাঁধে (বর্তমান সøুইজগেট) গুলি করে নির্মম ভাবে হত্যা করে। শহীদদের ওই বধ্যভূমিতে ৪৬ বছরেও গড়ে উঠেনি স্মৃতিস্তম্ভ।
ওই দিন যাঁরা শহীদ হয়েছিলেন তাঁরা হলেন, জিতেন্দ্র নাথ মিত্র, শৈলেন মিত্র, বিনোদ বিহারী, ফনী ভূষন মিত্র, ঝন্টু মিত্র, নগেন হালদার, অমল মিত্র, সুধাংশ হালদার, বিরাংশু হালদার, মধুসুদন হালদার, প্রিয়নাথ হালদার, সীতানাথ হাওলাদার, অন্নদা হাওলাদার, অনিল হাওলাদার, হিমাংশু মাঝি, জিতেন মাঝি, সুধীর মাষ্টার, অমেলেন্দু হাওলাদার, অচীন মিত্র, অরুণ মিত্র, নিরোধ পাইক ও কমল মন্ডল।
শহীদ পরিবার সূত্রে জানাগেছে, ১৯৭১ সালের ৬ অক্টোবর ভোর রাতে ৫০-৬০ জন রাজাকার বাহিনী ব্যপক ধরপাকড় ও লুটপাট করে আঙ্গুলকাটা গ্রামের মিস্ত্রী বাড়ি, মাঝি বাড়ি, হালদার বাড়ি, পাইক বাড়ি, মন্ডল বাড়ি, থেকে ৩৭ জন হিন্দুদের ঘুমন্ত অবস্থায় ধরে নিয়ে যায়। এর মধ্যে ৭ জনকে রাতভর থানায় আটকে রেখে অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে পরের দিন ছেড়ে দেয়। বাকী ৩০ জনকে মঠবাড়িয়া শহর হতে আড়াই কিলোটিার দূরে সূর্য্যমণি বেড়িবাঁধ সংলগ্ন খালের পাড়ে এক লাইনে দাঁড় করিয়ে গুলি করে হত্যা করে। এ সময় ৫ জন ভাগ্যক্রমে গুলি খেয়ে বেঁচে গেলেও বাকী ২৫ জন ঘটনাস্থলেই শহীদ হন।
শহীদ বিরাংশু কুমার হালদারের ছেলে বিকাশ চন্দ্র হালদার ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, মুক্তিযুদ্ধে আমরা স্বজনদের হাড়িয়েছি। কিন্তু আমাদের এ শহীদ পরিবারগুলোর প্রতি কেউ নজরতো দেয়নি। বরং ৪৬ বছরেও গণহত্যার স্থানে আজও কোন স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ হয়নি।
শুক্রবার (৬ অক্টোবর) গণহত্যা দিবস উপলক্ষে ২৫ শহীদ পরিবারের সদস্য ও স্বজনরা শোক র‌্যালী করে সূর্য্যমণি বেড়িবাঁধে শহীদ বেদীতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে স্বরণ সভার আয়োজন করেছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার মো. বাচ্চু মিয়া আকন বলেন, স্বাধীনতার ৪৬ বছর পেড়িয়ে গেলেও ওই শহীদদের স্বীকৃতি না পাওয়াটা দুঃখজনক। শহীদদের স্বীকৃতি ও সূর্য্যমণি বধ্যভূমিতে একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের জন্য সকল মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষ হতে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

 

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
error: Content is protected !!