,

শিরোনাম :
«» মঠবাড়িয়া পৌর যুব সমাজের উদ্যোগে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ «» মঠবাড়িয়ায় মুক্তিযোদ্ধাকে পেটাল আইনশৃঙ্খলা কমিটির সদস্য «» মঠবাড়িয়া নিউমার্কেট নিবাসী বজলুর রহমান খানের ইন্তেকাল «» মঠবাড়িয়ায় করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দুস্থ্যদের মধ্যে মানবিক সহায়তা প্রদান «» মঠবাড়িয়ায় ফসলের ক্ষেতে সৌর শক্তি চালিত আলোক ফাঁদ প্রদর্শণী «» কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশন কী? «» সামাজিক দূরত্ব বজায়কালীন মানসিক স্বাস্থ্য «» করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মঠবাড়িয়ার এক যুবকের পরামর্শ «» মঠবাড়িয়ায় জেএসসিতে ৭৪ শিক্ষার্থীর বৃত্তি লাভ : শীর্ষে কেএম লতীফ ইনস্টিটিউশন «» মঠবাড়িয়ায় তিন মাদকসেবীকে জরিমানা

১০ নভেম্বর শহীদ নূর হোসেন

স্টাফ রিপোর্টার : ১০ নভেম্বর শহীদ নূর হোসেন দিবস। ১৯৮৭ সালের এই দিনে তখনকার স্বৈরশাসকের বিরুদ্ধে আন্দোলনে রাজধানীর জিরো পয়েন্ট এলাকায় প্রাণ হারান তিনি। তাই বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ইতিহাসে শহীদ নূর হোসেন এক অনন্য নাম। উল্লেখ্য, নূর হোসেনের পৈতৃক বাড়ি পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার ঝাটিবুনিয়া গ্রামে।

বুকে পিঠে ‘গণতন্ত্র মুক্তি পাক—স্বৈরাচার নিপাত যাক’, এই স্লোগান ধারণ করে নূর হোসেনের মহান আত্মত্যাগের এই দিবস বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ইতিহাসে একটি বিরল ঘটনা।

শহীদ নূর হোসেনের রক্তদানের মধ্য দিয়ে তৎকালীন সেনাশাসকের বিরুদ্ধে আন্দোলন আরও বেগবান হয় এবং অব্যাহত আন্দোলন-সংগ্রামের ধারাবাহিকতায় ১৯৯০ সালের ৬ ডিসেম্বর সেনাশাসকের পতন ঘটে।

১০ নভেম্বর উপলক্ষে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবুদল হামিদ নূর হোসেনের আত্মার শান্তি কামনা করেন। সেই সঙ্গে নূর হোসেনের আত্মদানের বিনিময়ে অর্জিত গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে বলে মন্তব্য করেন রাষ্ট্রপতি।

পৃথক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১০ নভেম্বর নূর হোসেনের আত্মত্যাগের কারণে স্বৈরশাসকের পতনের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হয়। বাণীতে তিনি নূর হোসেনের আত্মার শান্তি কামনা করেন।

দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আজ সকাল সাড়ে ৯টায় রাজধানীর গুলিস্তানে শহীদ নূর হোসেন স্কয়ারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন এবং তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) সকাল ৮টায় শহীদ নূর হোসেন স্কয়ারে (জিরো পয়েন্ট) পুষ্পমাল্য অর্পণের মধ্য দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করবে। বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি সকাল ৮টায় পুষ্পস্তবক অর্পণ করবে। এছাড়াও বিএনপি, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, জাসদ, বাসদসহ গণতন্ত্রকামী বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন নূর হোসেনের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করবে।

 

0Shares

Comments

comments