,

শিরোনাম :

মঠবাড়িয়ায় স্বতন্ত্র প্রর্থীর সমর্থকদের হামলায় নৌকার প্রার্থীসহ আহত ১৯

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় স্বতন্ত্র উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজউদ্দিন আহমেদ এর সমর্থকদের হামলায় নৌকার প্রার্থী হোসাইন মোসারেফ সাকু, ১০ নং হলতা গুলিশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক রিয়াজুল আলম ঝনোসহ ১৯ জনকে এলোপাথারি কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। শনিবার (২৩ মার্চ) দিবাগত রাত সাড়ে দশটার দিকে গুলিশাখালী বাজারে এ ঘটনা ঘটে।এতে গোটা মঠবাড়িয়ায় মানুষের মাঝে দারুন উৎকন্ঠা বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, নৌকার প্রার্থী হোসাইন মোসারেফ সাকু তার সমর্থকদের নিয়ে গুলিশাখালী বাজারে জনসংযোগে গেলে আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ এর সমর্থকেরা পেছন থেকে হামলা করে। দেশীও ধারালো অস্ত্র দিয়ে মোসারেফ সাকুর পায়ে ও হাতে কোপায়। এতে মোসারেফ সাকুর বাম হাতের দুটি আঙুল কেটে গেছে এবং পায়ের নলায় কোপ লেগেছে। ১০ নং হলতা-গুলিশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াজুল আলম ঝনোর মাথায় রামদার কোপ লেগে তিনি গুরুতর আহত হয়েছেন।

একই সঙ্গে মোসারেফ সাকুর আরও ১৭ জন সমর্থক আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে মোসারেফ সাকু, রিয়াজুল আলম ঝনো, মো. বাবুল (৪০) ও মোতালেব তালুকদারকে (৪৫) রাত সাড়ে ১১টায় অ্যাম্বুলেন্সে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অন্য আহত যারা মঠবাড়িয়া হাসপাতালে ভর্তি আছেন তারা হলেন, রাজিব (৩০) বাদল সিকদার (৪০) জুনায়েদুর রহমান (৩৮)নয়ন মৃধা (২৫) জাহাঙ্গীর তালুকদার (৫২) যুব মহিলালীগের রোজি (২৪) জালাল তালুকদার (৪৫)।

চিকিৎসা নিয়ে যারা বাসায় গেছেন তারা হলেন, নাসির উদ্দিন (২৮) রাজু (২৫) জসিম (২২) মনির চৌকিদার (৩০) স্বপন ফরাজী (৪২) আব্দুর রহমান (৩৯)মো. আলমগীর (৩৫) নাঈম (২২)। আহতরা সবাই মঠবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা ও কর্মী।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি এম.আর. শওকত আনোয়ার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায়  পৌর এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় পুলিশী টহল জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় রোববার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনের কথা জানিয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও পৌর মেয়র রফি উদ্দিন আহম্মেদ ফেরদৌস।

 

Comments

comments