,

শিরোনাম :

মঠবাড়িয়ায় সমবায় ব্যাংকের লিজ দেয়া ৫৫টি পরিবারকে উচ্ছেদের পাঁয়তারার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌর শহরে কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের লিজ দেয়া জমিতে বসবাসকৃত ৫৫টি পরিবারকে উচ্ছেদের পাঁয়তারার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী পরিবারগুলো। রোববার রাতে শহরের শেরে বাংলা পাঠাগার সংলগ্ন ভুক্তভোগী তানিয়া আক্তারের বসতঘরে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
লিখিত বক্তব্যে লিজগ্রহীতা তানিয়া আক্তার বলেন, ২০০২ সালে তৎকালীন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ৫৫টি পরিবারের প্রত্যেকের কাছ থেকে এক লাখ থেকে দেড় লাখ টাকা গ্রহণ করে শেরে বাংলা পাঠাগার সংলগ্ন সমবায় ব্যাংকের পতিত জলাবদ্ধ নিচু খোলা জমি বসত ভিটির জন্য লিজ দেয়। তখন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ওই ৫৫টি পরিবারের কাছ থেকে নির্ধারিত মাসিক মাটিভাড়া নিয়ে বসতঘর নির্মাণ করে বসবাসের অনুমতি দেয়। এরপর ভুক্তভোগী পরিবারগুলো ৫ থেকে ৭ লাখ টাকা ব্যয় করে বসবাসের উপযোগী আধাপাকা ঘর নির্মাণ করে গত ১৭ বছর ধরে পরিবার-পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছে।
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও জানান, বর্তমানে তাদের নবায়নের মেয়াদ শেষ হলে পুনরায় নবায়ন করতে গেলে বর্তমান ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজিম-উল-হক চুক্তি নবায়নে অপারগতা প্রকাশ করেন এবং উচ্ছেদের হুমকি দিয়ে পুনরায় ৫ লাখ টাকা করে দাবি করেন। পরে গত ১ নভেম্বর বসতঘরগুলোর বিদ্যুতের লাইন বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়। এতে ওই জমিতে বসবাসকারী পরিবারের সন্তানেরা চলমান জেএসসি পরীক্ষায় বিদ্যুৎবিহীন চরম ভোগান্তিতে পড়ে। ওই জমি থেকে উচ্ছেদ করলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো সর্বস্বান্ত হয়ে পথে বসবে বলে সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করা হয়।
এ ব্যাপারে সমবায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজিম-উল-হক বলেন, ওই পরিবারগুলোর কাছে তিন বছরের জন্য অস্থায়ীভাবে মাটি ভাড়া দেয়া হয়েছিল। মেয়াদ শেষ হলেও বারবার নোটিশ করা সত্ত্বেও নোটিশ গ্রহণ না করে তারা অবৈধ দখল ছাড়ছে না। যে কারণে আমরা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

 

0Shares

Comments

comments