,

শিরোনাম :
«» মঠবাড়িয়ায় শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মাদ্রাসা ছাত্র গ্রেফতার «» মঠবাড়িয়ায় নির্বাচনী বিরোধের জেরে দুই প্রার্থীর দুই সমর্থক আহত «» মঠবাড়িয়ায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা «» মহিউদ্দিন আহমেদ মহিলা ডিগ্রি কলেজ উপজেলায় শ্রেষ্ঠ হওয়ায় আনন্দ শোভাযাত্রা «» মঠবাড়িয়ায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় «» মঠবাড়িয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানগনের দায়িত্ব গ্রহণ «» মঠবাড়িয়ায় ১১মামলার আসামীসহ ২ ডাকাত গ্রেফতার «» দৈনিক যায়যায়দিন পত্রিকার ১৪ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে মঠবাড়িয়ায় শোভাযাত্রা «» মঠবাড়িয়ায় দুই বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি : বাধা দেয়ায় গৃহবধূকে মারধর «» মঠবাড়িয়ায় আইনশৃঙ্খলা উন্নয়নে সুধী সমাবেশ ও মতবিনিময় সভা

মঠবাড়িয়ায় মেয়ে হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত আসামী বাবা গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ মেয়ে জেসমিন আক্তার রিংকু হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত পলাতক আসামী বাবা মহারাজ হাওলাদার (৫৫) কে গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার বিকেলে বাগেরহাট জেলার ফকিরহাটের বটতলা নামক এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত মহারাজ হাওলাদার উপজেলার ছোট শিংগা গ্রামের আলী হোসেন হাওলাদারের ছেলে।
থানা সূত্রে জানাগেছে, ২০০৫ সালের নিজের মেয়ে জেসমিন আক্তার রিংকুকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে প্রচার চালায় মহারাজ হাওলাদার। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়। পরে পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে মেয়ে জেসমিন আক্তার রিংকুর নামে পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীতে একটি বীমা করে মহারাজ হাওলাদার। পরে বীমার টাকার লোভে মহারাজ মেয়েকে গলা টিপে হত্যা করে। এরপর পুলিশ অপমৃত্যু মামলাটিকে হত্যা মামলায় রুপান্তর করে। এ হত্যা মামলায় সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে ২০১৬ সালে পিরোজপুর জেলা দায়রা জজ আদালত মহারাজ হাওলাদারের অনুপস্থিতিতে তাকে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করেন। এরপর থেকে সে পলাতক ছিলো।
মঠবাড়িয়া থানার এসআই জাফর আহমেদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ মঙ্গলবার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাগেরহাট জেলার ফকিরহাটে অভিযান চালিয়ে বটতলা শ্মশান কালী মন্দির এলাকা থেকে মহারাজ হাওলাদারকে গ্রেফতার করে।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লাহ্ জানান, গ্রেফতারকৃত মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত মহারাজ হাওলাদারকে বুধবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

 

Comments

comments