,

শিরোনাম :

মঠবাড়িয়ায় ঘূর্ণিঝড় ফণী মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি : চলছে মাইকিং

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ফণী এর সম্ভব্য ক্ষয়ক্ষতি এবং বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সিপিপি ও স্বেচ্চাসেবী সংগঠনগুলো জনসাধারণকে নিরাপদ আশ্রয় গ্রহণের জন্য মাইকিং করে যাচ্ছে।
এ ছাড়া বুধবার রাতে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জি এম সরফরাজ এর সভাপতিত্বে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ও উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব মো. মসিউর রহমান, সিপিপির সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান ইব্রাহিম খলিল ফরাজী, আব্দুস সোবাহান শরিফ, রফিকুল ইসলাম রিপনসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানবৃন্দ, সিপিপির সহকারি পরিচালক ইকবাল হোসেন উপ পুলিশ পরিদর্শক সওকত হোসেন প্রমুখ।
সভায় উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যলয়কে কন্ট্রল রুম ঘোষণা করা হয়,উপজেলার পূর্ব ঘোষিত ৫২টি স্থান দুর্যোগ কালীন আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে নির্ধারণ ও ইউনিয়ন পর্যায়ে নতুন করে আশ্রয় কেন্দ্র করা, নদী তীরবর্তী এলাকায় মাইকিং করে স্থানীয় জনসাধারণদের সর্তক ও নিরাপদ আশ্রয় নিয়ে আসা, নদী তীরবর্তী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সাপলেজা ,বেতমোর. আমরাগাছিয়া, বড়মাছুয়া,তুষখালী সর্বোচ্চ সতর্ক থেকে বাধের নিকটবর্তী জনসাধারণকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়ার পদক্ষেপ গ্রহন করা, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে মেডিকেল টিম গঠন করে তার তালিকা কন্ট্রল রুমে প্রেরণ করা , দুর্যোগকালীন দমকল কর্মী,সিপিপি, রেডক্রিসেন্ট ও অন্যান্য কমিউনিটি সেচ্ছাসেবীদের সাহায্য করা ও আইন শৃখলা বাহিনির সদস্যদের নিকট হতে সাহায্য গ্রহন করা , উপজেলা পরিষদের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীর ছুটি বতিলসহ বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।
সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জি এম সরফরাজ তার বক্তব্য বলেন মঠবাড়িয়া উপজেলা উপকুলীয় এলাকা হওয়ায় বিগত বছরগুলোতে সিডর, আইলাতে প্রানহাণী ঘটেছে তাই আসন্ন ফণী মোকাবেলায় সবাইকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার আহব্বান জানান।

 

Comments

comments