,

শিরোনাম :

মঠবাড়িয়ায় কলেজ ছাত্রীর ধর্ষণের ভিডিও প্রকাশ করা ও চাঁদা দাবির আসামী রিমান্ডে

স্টাফ রিপোটারঃ  পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায়  প্রেমিকার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের ভিডিও ধারণ করে ফেসবুকে ছড়িয়ে  ও  চাঁদা দাবির মামলার আসামী আব্দুল্লাহ আল মুবিন (১৯) নামে এক কলেজ ছাত্রকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

মঠবাড়িয়ার থানা  পুলিশ মঠবাড়িয়ায় সিনিয়ার জুডিসিয়ান মেজিস্টেড আদালতে গেপ্তারকৃত আব্দুল্লাহ আল মুবিনকে ব্যাপক জিগ্গাসাবাদ এর জন্য ৫ দিনের আবেদন করলে বিজ্ঞ মেজিস্টেড আল ফয়সাল দিন এর রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত ১৩ সেপ্টম্বর  শুক্রবার দুপুরে পিরোজপুর ডিবি পুলিশের একটি দল খুলনা থেকে মুবিনকে গ্রেফতার করে মঠবাড়িয়া থানায় সোপর্দ করে। গ্রেফতার মুবিন উপজেলার সাফা বাজারের নবী হোসেন মেকারের ছেলে। তিনি খুলনা পাবলিক কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র।

এ ঘটনায় ওই কলেজছাত্রীর বাবা স্থানীয় একটি কলেজের প্রভাষক শুক্রবার আব্দুল্লা আল মুবিনসহ সাতজনকে আসামি করে মামলা করেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, সাফা বাজারের নবী হোসেন মেকারের ছেলে মুবিন সাফা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করার সময় একই ক্লাসের ওই ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক হয়। এরপর ২০১৮ সালের ১ এপ্রিল থেকে ১৫ জুলাই ২০১৯ পর্যন্ত ওই ছাত্রীর বাসায় একাধিকবার তারা শারীরিক সম্পর্কে মিলিত হয়। শারীরিক সম্পর্কের অশ্লীল ভিডিও বন্ধুদের সহযোগিতায় মোবাইলে ধারণ করে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয় এবং ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করেন। 

Comments

comments