,

শিরোনাম :
«» পিরোজপুর জেলার শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জি.এম সরফরাজ «» মঠবাড়িয়ায় নারী ভোটারদের উদ্ভুদ্ধ করতে যুব মহিলা লীগের কর্মী সভা «» প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে মঠবাড়িয়ায় শিক্ষার্থীদের শোভাযাত্রা ও মানববন্ধন «» মঠবাড়িয়ার বড় মাছুয়ায় যুব মহিলা লীগের কর্মী সভা «» মুক্তিযোদ্ধা দেলায়ার হোসেন বাদলের (গোলকি বাদল) ইন্তেকাল «» আশরাফুর রহমান জেলায় শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত «» মঠবাড়িয়ায় শারদীয় দূর্গাপুজা উপলক্ষে শাড়ি বিতরণ «» মঠবাড়িয়ায় কলেজ ছাত্রী ধর্ষণ ॥ বিষ পানে আত্মহত্যা ॥ ৭ বছর পর ধর্ষক গ্রেফতার «» মঠবাড়িয়ায় মা ইলিশ শিকারের দায়ে এক জেলের কারাদন্ড «» মঠবাড়িয়ায় জেলা প্রশাসক স্বপ্নজয়ীদের বাইসাইকেল প্রদান করলেন

মঠবাড়িয়ার স্কুলছাত্রী ঊর্মির হত্যাকারির ফাঁসির দাবিতে ঢাকায় মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টর : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার চতুর্থ শ্রেণীর স্কুলছাত্রী, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্য, সাংবাদিক কন্যা ঊমির (৯)  খুনির ফাঁসির দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাব সন্মূখ সড়কে মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালে ঢাকাস্থ মঠবাড়িয়াবাসি এ কর্মসূচির আয়োজন করেন। এতে ছোট্ট মনুদের জন্য ভালবাসা নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সংহতি প্রকাশ করেছেন। নিহত উর্মি দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ পত্রিকার পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলা সংবাদদাতা জুলফিকার আমীন সোহেলের মেয়ে।

ঘন্টাব্যাপী এ মাবববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে মঠবাড়িয়া নাগরিক কমিটির আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুল হক খান মজনুর সভাপতিত্বে ও আ‘লীগ নেতা ওবাইদুল হক খানের সঞ্চালনায় খুনি ছগির আকনের ফাঁসি দাবি করে বক্তব্য দেন, বরগুনা-২ আসনের সাবেক সাংসদ মো. হুমায়ূন কবির হিরু, মঠবাড়িয়া উপজেরা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এমাদুল হক খান, সাংবাদিক নেতা আজমল হক হেলাল, প্রকৌশলী বেলায়েত হোসেন, মঠবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আজিজুল হক সেলিম মাতুব্বর, কেন্দ্রীয় যুলীগের সহ-সম্পাদক তাজউদ্দিন আহম্মেদ, মঠবাড়িয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুলহাস শাহিন, সাংবাদিক জামাল এইচ আকন, মোস্তফা কামাল বুলেট ও নিহত ঊর্মির পিতা জুলফিকার আমীন সোহেল। সমাবেশে বক্তারা ঊর্মির খুনির উপযুক্ত বিচারের দাবিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করেন।

উল্লেখ্য, গত ২১ জুলাই ঊর্মি নিখোঁজ হলে ২৩ জুলাই বাড়ির ৫‘শ গজ দুরে পরিত্যাক্ত বাগানের একটি নালার মধ্যে গলায় ফাঁস দেওয়া ও হাত বাঁধা ঊর্মির ভাসমান লাশ দেখতে পান স্বনরা। পরে খবর পেয়ে থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠান। এঘটনায়  নিহত ঊর্মির পিতা জুলফিকার আমীন সোহেল ২৩ জুলাই রাতেই মঠবাড়িয়া থানায় অজ্ঞাত আসামী করে মামলা করলে পুলিশ ছগির আকন (৩৫)কে গ্রেফতার করেন। ছগির পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার উত্তর বড়মাছুয়া গ্রামের মৃত. কুদ্দুস আকনের ছেলে। বর্তমানে ছগির জেল হাজতে রয়েছে।

 

Comments

comments