,

শিরোনাম :
«» মঠবাড়িয়ায় নির্বাচনী সংঘর্ষে ২ প্রার্থীর ৮ কর্মী আহত «» মঠবাড়িয়ায় যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার «» মঠবাড়িয়ায় দণ্ডপ্রাপ্ত সাইদীর মুক্তি চেয়ে ধানের শীষে ভোট চাওয়ায় মাইক প্রচারম্যান আটক «» মঠবাড়িয়ায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত «» মঠবাড়িয়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীসহ ৬ নেতা বহিষ্কৃত «» তেলিখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শাহাদাৎ হোসেনের ইন্তেকাল «» স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আশরাফুর রহমানের মঠবাড়িয়া প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় «» মঠবাড়িয়ায় জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দিবস পালিত «» ইশতেহার আসছে : অপ্রতিরোধ্য বাংলাদেশ গড়বে আওয়ামী লীগ «» মঠবাড়িয়ায় মার্কা পেয়েই মহাজোট ও আ’লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীর মিছিল

পিরোজপুর-৩ মঠবাড়িয়া আসনে মহাজোটে লাঙ্গল নয় নৌকা চায় আওয়ামীলীগ, বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা

স্টাফ রিপোর্টার : পিরোজপুর-৩ মঠবাড়িয়া আসনে ক্ষমতাসীন দল বা জোট থেকে কে মনোনয়ন পাচ্ছেন, সেটা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তবে এলাকায় মহাজোটে ডা. ফরাজীর প্রার্থীতা শতভাগ চুড়ান্ত বলে গুঞ্জন ওঠায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ নেতৃবৃন্দসহ তৃণমূলের বড় একটি অংশ ফুঁসে উঠেছে। তাঁরা দলীয় প্রার্থী হিসেবে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফুর রহমানকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মাঠে পেতে চায়। এ নিয়ে তৃণমুল নেতাকর্মীদের মাঝেও সামাজিক যোগাযোগে সাংসদ ডা.ফরাজীকে নিয়ে বিভিন্ন আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে। ফলে এ আসনটিতে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।
স্থানীয় নেতাদের দাবি, বর্তমান সাংসদ ডা. রুস্তুম আলী ফরাজী সুযোগ বুঝে বারবার দল পাল্টানো নেতা হিসেবে এলাকায় সমালোচিত। তাকে স্থানীয়রা সুযোগবাদি নেতা হিসেবে আক্ষা দিয়েছেন। ২০০১ সালে বিএনপি ও ২০১৪ সালে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের ৫৭ ধারায় মামলাসহ বিভিন্নভাবে হয়রানি করেছেন। এ আসনে মহাজোট থেকে তাকে মনোনয়ন দেয়া হলে স্থানীয় আওয়ামী লীগের বড় একটি অংশ তাঁর পক্ষে কাজ করবেনা। বিক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা কর্মীরা জানিয়েছেন ডা. ফরাজী মহাজোটের মনোনয়ন চুড়ান্ত হলে দলের বড় একটি অংশের দাবির প্রেক্ষিতে উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফুর রহমান স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মাঠে নামার সকল প্রস্ততি গ্রহণ করেছেন।
এ দিকে এ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে আরও আলোচনায় রয়েছেন ২০০৮ সালে নির্বাচিত সাবেক সংসদ সদস্য ডা. আনোয়ার হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ডা.এম নজরুল ইসলাম, পিরোজপুর জেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন মহারাজ ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পৌর মেয়র রফিউদ্দিন ফেরদৌস।
এ বিষয় উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জাহিদ উদ্দিন পলাশ বলেন, দেশরতœ শেখ হাসিনার  একটি আসন চোখের সামনে হারাতে দেবনা। আশরাফুর রহমান মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। ইতি মধ্যে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা একত্রিত হয়ে আশরাফুর রহমানকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হবার জন্য আহবান জানিয়েছেন। আমরা নৌকার মনোনয়ন না পেলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে কাজ করার সকল প্রস্ততি নিয়েছি।
মঠবাড়িয়া উপজেলা জাতীয়পার্টির সভাপতি নুরুজ্জামান লিটন জানান, দীর্ঘদিন আওয়ামীলীগ ও জাতীয়পার্টি এক হয়ে কাজ করেছে। ডা. রুস্তুম ফরাজী তিনবারের  নির্বাচিত সংসদ সদস্য। মহাজোটে এ আসনটি পেতে হলে তিনি ছাঁড়া বিকল্প নেই।
এই বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামীগেরে সভাপতি পৌর মেয়র রফিউদ্দিন আহম্মেদ ফেরদৌস বলেন, কেন্দ্র থেকে এখনও চুড়ান্ত মনোনয়ন কাউকে দেয়া হয়নি। তবে দলীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক আমরা কাজ করে যাব।

 

Comments

comments